মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

সাধারণ ও উন্নয়ন বিষয়ক মিটিং এর রেজুলেশন

জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে প্রতি মাসের দ্বিতীয় রবিবার জেলা উন্নয়ন সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। উক্ত সভায় জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির সকল সদস্যবৃন্দ উপস্থিত থাকেন । সভাপতি হিসেবে উপস্থিত থাকেন সরোজ কুমার নাথ , জেলা প্রশাসক, ঝিনাইদহ ।

ঝিনাইদহ জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির আগস্ট ২০১৮ মাসের সভার কার্যবিবরণী

 

সভাপতি              : সরোজ কুমার নাথ, জেলা প্রশাসক, ঝিনাইদহ

সভার স্থান            : জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষ, ঝিনাইদহ

সভার তারিখ         : ১৯-০৮-২০১৮ খ্রিঃ

সভার সময়           : সকাল ১০:০০ টা

      

 উপস্থিত সকলকে স্বাগত জানিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু করা হয়। সভায় গত সভার কার্যবিবরণী পাঠ করে শোনানো হয়। কার্যবিবরণীতে জেলা সমবায় অফিস, ইসলামিক ফাউন্ডেশন, পিটিআই এবং রেশম উন্নয়ন বোর্ডের কিছু অংশে সংশোধনী থাকায় তা গ্রহণপূর্বক সভার কার্যবিবরণী সর্বসম্মতিক্রমে অনুমোদিত হয়।

 

 জেলার বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের বিভাগীয় কার্যক্রমের অগ্রগতি সম্পর্কে নিম্নরূপ আলোচনা ও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়:

 

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

০১

জেলা পরিষদ:

ক) সচিব, জেলা পরিষদ জানান, ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে নিজস্ব তহবিলের অর্থ ১৪৯.৬০ লক্ষ টাকা, সাধারণ বরাদ্দের আওতায় ১ম, ২য়, ৩য় ও ৪র্থ কিস্তিতে মোট ৫৫০.০০ লক্ষ টাকা, বিশেষ বরাদ্দ ১০০.০০ লক্ষ টাকা, গোরস্থান ও শ্মশান উন্নয়নের জন্য ২৪.৬০ লক্ষ টাকা, বিশেষ বরাদ্দ ৫০.০০ লক্ষ টাকা এবং এডিপি সাশ্রয় ৪০.০০ লক্ষ টাকাসহ সর্বমোট ৮৭৪.২০ লক্ষ টাকার ৪৫২টি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে ২৭৫টি। অবশিষ্ট প্রকল্পের কার্যক্রম চলমান আছে।

 

খ) সচিব, ঝিনাইদহ জেলা পরিষদ জানান, নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অনুরোধক্রমে বিধি অনুযায়ী ইতোমধ্যে ০৬টি গাছ অপসারণ করা হয়েছে। অবশিষ্ট ০২টি গাছ অপসারণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন আছে। 

 

ক) ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের গৃহীত প্রকল্পসমূহ সুষ্ঠুভাবে এবং বিধি মোতাবেক বাস্তবায়নের জন্য  তদারকি অব্যাহত রাখতে হবে।

খ) জেলা পরিষদের গাছগুলি বিধিমোতাবেক অপসারণ/নিলামে বিক্রয়ের  দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

 

 

সচিব, জেলা পরিষদ ।

 

 

 

০২

স্বাস্থ্য বিভাগ:

(ক) সিভিল সার্জন জানান, এ জেলায় ১৭৩টি কমিউনিটি ক্লিনিকের মাধ্যমে জুলাই ২০১৮ মাসে ৮১,৪৭১ জন গ্রামীণ দরিদ্র জনগণকে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়েছে। সদর হাসপাতালসহ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সসমূহে জুলাই ২০১৮ মাসে ৭,৬১৭ জনকে আন্তঃবিভাগে; ৯১,৪৮৩ জনকে জরুরি ও বহিঃবিভাগে সেবা প্রদান করা হয়েছে। জুলাই ২০১৮ মাসে সন্তান প্রসবের সংখ্যা ৩৯৮ জন। স্বাভাবিক প্রসব ২৭৯ জন এবং সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে ১১৯ জনকে সেবা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া চলতি মাসে ২,৮২৫টি শিশুর জন্ম নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে। এ মাসে এক্স-রে, প্যাথলজি, অ্যাম্বুলেন্স ফি, অপারেশন ফি, রোগী ভর্তি ফি, কেবিন ভাড়া ইত্যাদি বাবদ ১২,৭৯,৮০১/- টাকা আদায় হয়েছে; যা সরকারি কোষাগারে জমা দেওয়া হয়েছে।  উপজেলা পর্যায়ের শূন্য পদ পূরণের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে যোগাযোগ অব্যাহত আছে।

 

ডাক্তার এবং কর্মচারীর শূন্য পদ পূরণের জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সাথে যোগাযোগ অব্যাহত রাখতে হবে।

 

সিভিল সার্জন, ঝিনাইদহ।

 

 

 

 

 

 

 

 

স্বাস্থ্য বিভাগ:

খ) তত্ত্বাবধায়ক জানান, সদর হাসপাতালে আগত দুর্ঘটনাকবলিত, ডায়রিয়া, অপারেশনসহ বিভিন্ন ধরণের ২৬,৮৫০জন রোগীকে সেবা প্রদান করা হয়েছে। তিনি আরও জানান, ইমারজেন্সি রুমে রডসহ ফ্যান খুলে পড়েছে এবং ইমারজেন্সি রুমের এসি ঠিক করতে হবে। বৈদ্যুতিক সরঞ্জামসহ ছাদ দ্রুত মেরামত করা প্রয়োজন মর্মে  জানান। এমাসে এক্স-রে, প্যাথলজি, অ্যাম্বুলেন্স ফি, অপারেশন ফি, রোগী ভর্তি ফি, কেবিন ভাড়া ইত্যাদি বাবদ ৪,৯০,২১০/- টাকা আদায় হয়েছে।

 

সেবামূলক কার্যক্রম বৃদ্ধি করতে হবে। ওটি রুমের এসি মেরামত করতে হবে।

 

তত্ত্বাবধায়ক, সদর হাসপাতাল/ নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ।

 

 

      

 (০১)

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

০৩

পুলিশ বিভাগ:

পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি জানান, পূর্বের তুলনায় এ জেলার আইন-শৃঙ্খলা অনেক ভালো। বর্তমান সরকারের বড় চ্যালেঞ্জ মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ, জঙ্গি তৎপরতাসহ সব ধরনের সন্ত্রাসী কার্যকলাপ সমূলে নির্মূল করার জন্য তিনি জেলার সকল স্তরের জনগণের সহযোগিতা কামনা করেন। এলাকায় কোন সন্দেহজনক অপরিচিত লোক দেখলে সাথে সাথে থানায় জানাতে এবং ভুল তথ্য না দিয়ে সঠিক তথ্য প্রদানের জন্য সভার মাধ্যমে সবাইকে অনুরোধ করেন। তথ্য প্রদানকারীর পরিচয় গোপন রাখা হবে মর্মে তিনি সভাকে অবহিত করেন। আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে সার্বিক নিরাপত্তা রক্ষাকল্পে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

জেলার আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখা, মাদক ও জঙ্গিতৎপরতাসহ সব ধরনের নাশকতামূলক কার্যক্রম সমূলে নির্মূল করার কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।

 

পুলিশ সুপার/সহকারী পরিচালক মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর/

উপপরিচালক ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

০৪

কৃষি  বিভাগ:

উপপরিচালক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি সভায় খরিপ-১/২০১৭-১৮ মৌসুমে পাট, সবজী, মুগ, তিল, মরিচ, হলুদ, ফুল, পেঁপে, কলা আবাদের লক্ষ্যমাত্রা এবং আবাদের অগ্রগতি উপস্থাপন করেন। ইউরিয়া সার ৫৪৭৫ মেঃ টন, টিএসপি ১২৫৫ মেঃ টন, ডিএপি ১৮৫৯ মেঃ টন এবং এমওপি ২১৮১ মেঃ টন মজুদ রয়েছে মর্মে জানান। এছাড়া তিনি আরো উল্লেখ করেন, পরিবেশ বান্ধব চাষাবাদে কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণের জন্য কৃষক প্রশিক্ষণ ও মাঠ দিবস কার্যক্রম অব্যাহত আছে। সমন্বিত বালাইনাশক চাষে কৃষকদের উৎসাহিত করা হচ্ছে। রাসায়নিক সার, বীজ ও জ্বালানি তেলসহ অন্যান্য কৃষি উপকরণের মজুদ, সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতি সন্তোষজনক। খরিপ-১/২০১৭-১৮ মৌসুমে মোট ৪৪০টি প্রদর্শনীর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত আছে। স্থাপিত প্রদশনীর ফসলের অবস্থা ভালো। সেসাথে ভেজালমুক্ত বীজ সরবরাহের বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়।

 

আধুনিক পদ্ধতিতে চাষাবাদে কৃষকদের উৎসাহ প্রদান অব্যাহত রাখতে হবে। জেলা বীজ প্রত্যয়ন কর্মকর্তা ভেজালমুক্ত বীজ সরবরাহের বিষয়টি  বিশেষভাবে তদারকি করবেন।

 

উপপরিচালক

কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর/জেলা বীজ প্রত্যয়ন কর্মকর্তা।  

 

 

 

 

 

০৫

 

পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ :

উপপরিচালক, পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর জানান, জেলায় জুলাই ২০১৮ মাসে মোট সক্ষম দম্পতির সংখ্যা ৩,৮৮,৩৪৬ জন এবং জন্ম নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি গ্রহণকারী দম্পতির সংখ্যা ৩,০২,৮৫৮ জন। জন্ম নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি গ্রহণকারীর হার ৭৭.৯৮%। মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র, ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এবং FWA কর্তৃক ১২২ জন প্রসূতির স্বাভাবিক সন্তান প্রসব করানো হয়। সেই সাথে সদর হাসপাতালের পাশাপাশি  প্রসূতি মায়েদের মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্রে আসার জন্য অনুরোধ করেন। কারণ এখানে বেড অনেক সময় খালি থাকে এবং সেবাসমূহ বিনামূল্যে প্রদান করা হয়ে থাকে। সেবা কেন্দ্রে সার্বক্ষণিক ডাক্তার না থাকায় জনসাধারণ তাদের সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সেকারণে সার্বক্ষণিক উক্ত সেবা কেন্দ্র খোলা রাখা এবং কেন্দ্রে বিনামূল্যে সেবা প্রদানের বিষয়টি ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে জনগণকে অবহিত করার‌‌ জন্য সভায় মতামত ব্যক্ত করা হয়। এছাড়া, মা ও শিশু স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক কার্যক্রম রেজিস্টারের পরিবর্তে ট্যাবের মাধ্যমে অনলাইনে অন্ত ভুক্তিকরণ ক্তিকরণ করা হচ্ছে মর্মে উপপরিচালক পরিবার পরিকল্পনা সভাকে অবহিত করেন। সেসাথে জনবল নিয়োগের কার্যক্রম অব্যাহত আছে মর্মে তিনি জানান।

 

ক) সক্ষম দম্পত্তি ও প্রসূতি মায়েদের বিনামূল্যে পরিবার পরিকল্পনা সেবা গ্রহণের বিষয়টি ব্যাপক প্রচার করতে হবে ।

খ) দাপ্তরিক  কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

উপপরিচালক পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর।

 

০৬

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর:

নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, নির্বাচিত বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়সমূহের ভৌত অবকাঠামো উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৪১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের একাডেমিক ভবন নির্মাণ কাজের মধ্যে ৪১টির নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে। কাজের গড় অগ্রগতি ১০০%। উপজেলা পর্যায়ে ৩১৫টি নির্বাচিত বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে মডেল স্কুলে রুপান্তর শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৪টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবন নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে। জেলা সদরে অবস্থিত সরকারি পোস্ট গ্রাজুয়েট কলেজে শিক্ষার মান উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ৪টি কাজের মধ্যে ৩টি কাজ সমাপ্ত হয়েছে এবং ০১টির কাজ চলমান আছে। নির্বাচিত বেসরকারি মাদ্রাসাসমূহের একাডেমিক ভবন নির্মাণ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ১৩টি কাজের সবগুলোই সমাপ্ত হয়েছে। ঝিনাইদহ টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ স্থাপন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় শুরু হওয়া ২০টি কাজের মধ্যে ১১টির কাজ সমাপ্ত হয়েছে; অগ্রগতি ৮২.৭০%। এছাড়া তথ্য প্রযুক্তির সহায়তায় শিক্ষার মান উন্নয়নে নির্বাচিত বেসরকারি কলেজসমূহের উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় ১৭টির মধ্যে ১৭টিই সমাপ্ত হয়েছে। রাজস্ব বাজেটের আওতায় মেরামত ও সংরক্ষণ খাতে বেসরকারি স্কুলসমূহের উন্নয়ন প্রকল্পে ২২টির মধ্যে ১০টি সমাপ্ত হয়েছে। গড় অগ্রগতির পরিমাণ ৭৫.৫৯%।

 

ক) সংশ্লিষ্ট বিধি-বিধান অনুসরণপূর্বক টেকসইভাবে প্রকল্প বাস্তবায়নের ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

খ) স্কুলের ঢালাইয়ের কাজে নিয়োজিত ঠিকাদারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা ও ব্লাকলিস্ট তৈরিপূর্বক আগামী সভায় বিষয়টি উপস্থাপন করতে হবে।

 

নির্বাহী প্রকৌশলী  শিক্ষা প্রকৌশল

অধিদপ্তর।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

(০২)

 

 

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

০৭

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান:

ক) অধ্যক্ষ, সরকারি কেসি কলেজ জানান, পাঠদান কার্যক্রমসহ দাপ্তরিক অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। এছাড়া, মাদক দ্রব্য সেবন, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ইত্যাদি প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের সচেতন করতে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা হচ্ছে। সে সাথে দুর্ঘটনা প্রতিরোধে কলেজের সামনে  গতিরোধক ব্যবস্থা প্রদানের অনুরোধ জানান।

 

 

 

 

 

 

 

খ) অধ্যক্ষ, সরকারি নূরুননাহার মহিলা কলেজের প্রতিনিধি জানান, ইতোমধ্যে একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি কার্যক্রম শেষ হয়েছে। পাঠদান কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদকদ্রব্য সেবন ইত্যাদি প্রতিরোধের বিষয়ে আলোচনা অব্যাহত আছে। কলেজ হতে ১নং পানির ট্যাংক পযর্ন্ত রাস্তাটি সংস্কারের বিশেষ প্রয়োজন মর্মে তিনি সভাকে অবহিত করেন।

 

 

 

 

 

গ) অধ্যক্ষ, ঝিনাইদহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট জানান, নকলমুক্ত পরিবেশে পর্ব সমাপনী পরীক্ষা ২০১৮ অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্যান্য কার্যক্রম যথারীতি  চলমান আছে ।

 

ক)  সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, মাদকদ্রব্য সেবন ইত্যাদি প্রতিরোধে সচেতনতা বৃদ্ধি কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।

খ) দুর্ঘটনা প্রতিরোধে কলেজের সামনে Ramble Stripe  দিতে হবে।

 

 

খ) জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ছাত্র-ছাত্রীদের সচেতনতা বৃদ্ধির কার্যক্রম জোরদার করতে হবে। সে সাথে ১নং পানির ট্যাংক হতে সরকারি নূরুননাহার মহিলা কলেজ পর্যন্ত রাস্তা সংস্কার করতে হবে।

গ) জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে ছাত্র-ছাত্রীদের সচেতন করতে হবে।

 

অধ্যক্ষ, সরকারি কেসি কলেজ/ নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগ।

 

 

 

 

 

 

অধ্যক্ষ,  সরকারি নূরুননাহার মহিলা কলেজ/মেয়র, ঝিনাইদহ পৌরসভা।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

অধ্যক্ষ, ঝিনাইদহ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট।

০৮

 

 

 

 

 

 

শিক্ষা বিভাগ:

ক) মাধ্যমিক শিক্ষা বিভাগ:

জেলা শিক্ষা অফিসার জানান, মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম মনিটরিং চলছে। এ জেলায় নিবন্ধিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৩৯৫টি। অনলাইনের মাধ্যমে এমপিও কার্যক্রম চলমান আছে। তাছাড়া, দাপ্তরিক অন্যান্য কার্যক্রম ই-ফাইলের মাধ্যমে চলছে। ৩১৫টি প্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল হাজিরা কার্যক্রম চলছে। সভার মাধ্যমে সকল উপজেলার সকল  স্কুলে ‍‌‌‌‍‍‍সততা স্টোর চালু করতে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। কিশোর-কিশোরী শিক্ষার্থীদের সুস্থ বিনোদন ও আইসিটি দক্ষতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে নির্মিত প্লাটফর্ম “কিশোর বাতায়নে‌‍” ৬০% সদস্য আওতাভুক্তকরণের কার্যক্রম অব্যাহত আছে। ইতোমধ্যে ১,৯০০জন শিক্ষার্থী কিশোর বাতায়নের সদস্য হয়েছে। অন্যান্য কার্যাবলি স্বাভাবিকভাবে চলছে।

 

 

ক) বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করতে হবে।

খ) কিশোর বাতায়ন কর্মসূচি জোরদার করতে হবে। সকল স্কুলে সততা স্টোর চালু করতে হবে।

 

 

 

জেলা শিক্ষা অফিসার।

 

খ) প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগ:

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার জানান, জেলায়  প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহে শতভাগ মিড ডে মিল চালু করা হয়েছে। বিগত জুলাই ২০১৮ মাস পর্যন্ত ৭৭৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ল্যাপটপ প্রদান করা হয়েছে এবং ৩১০টি বিদ্যালয়ে মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে পাঠদান কার্যক্রম চলমান আছে। অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে।  

 

বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করতে হবে এবং মিড ডে মিল চালু রাখতে হবে।

 

 

জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার।

 

০৯

খাদ্য বিভাগ:

জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক জানান, জেলায় গুদাম সংখ্যা ৩০টি; যার ধারণ ক্ষমতা ১৭,৫০০ মেঃ টন। বর্তমানে খাদ্য গুদামে ধান মজুদ নেই এবং চাল মজুদ আছে ১৭৯৭২ মেঃ টন এবং গম মজুদ আছে ২৯৪ মেঃ টন। খাদ্যশস্য ব্যবসায়ীদের চলতি মাসে নতুন লাইসেন্স প্রদান করা হয়নি। খাদ্যশস্যসহ বিভিন্ন লাইসেন্স বাবদ ২০১৭-১৮ অর্থবছরে জুলাই মাসে ৪,০৮৪৬/- টাকা রাজস্ব আদায় করা হয়েছে। এছাড়া ১২ জন ওএমএস  ডিলারের মাধ্যমে সপ্তাহে (শুক্রবার ব্যতিত) প্রতিদিন আটা ও চাল বিক্রি কার্যক্রম চলমান আছে।

 

 

ওএমএস কার্যক্রম স্বচ্ছতারসাথে সম্পন্ন করতে হবে।

 

 

জেলা খাদ্য

নিয়ন্ত্রক।

 

 

 

 

 

(০৩)

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

১০

গণপূর্ত বিভাগ:

নির্বাহী প্রকৌশলী, গণপূর্ত বিভাগ জানান, মহেশপুর উপজেলার ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের কাজ সমাপ্ত হয়েছে। প্রত্যাশী সংস্থার নিকট হস্তান্তরে চিঠি প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া, ঝিনাইদহ জেলা পুলিশ লাইনে টাইপ-২ অনুযায়ী ৬ তলা ভিত বিশিষ্ট ২ (দুই) তলা মহিলা পুলিশ ব্যারাক নির্মাণ (ফিনিশিং) কাজ শেষের দিকে, ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালকে ১০০ শয্যা হতে ২৫০ শয্যায় উন্নীতকরণ (সিভিল, স্যানিটারি ও বৈদ্যুতিক) কাজ, বারবাজার হাইওয়ে আউটপোস্ট ভবন নির্মাণ কাজ, কোটচাঁদপুর থানা ভবন নির্মাণ কাজ চলমান। এএসপি’র অফিস কাম বাস ভবন হস্তান্তর প্রক্রিয়াধীন। শিল্পকলা একাডেমির নির্মাণ কাজ ২০১৪ খ্রি. শুরু হয়ে আজ পর্যন্ত শেষ হয়নি মর্মে জেলা কালচারাল অফিসার সভায় জানান, শিল্পকলার নির্মাণাধীন যে সকল কাজ সমাপ্ত হয়নি সেসকল কাজ সঠিকভাবে সম্পন্ন করার জন্য সভায় অনুরোধ জানান।

 

জেলা শিল্পকলা একাডেমির উন্নয়নমূলক সকল কাজ  মানসম্মতভাবে স্বচ্ছতার সাথে  অক্টোবর মাসের মধ্যে শেষ করতে হবে।

 

নির্বাহী প্রকৌশলী গণপূর্ত বিভাগ/ জেলা কালচারাল অফিসার।  

১১

সড়ক ও জনপথ বিভাগ:

নির্বাহী প্রকৌশলী, সড়ক ও জনপথ বিভাগের প্রতিনিধি জানান, ২০১৭-১৮ অর্থ বছরের এডিপি প্রকল্পের মধ্যে ঝিনাইদহ-চুয়াডাঙ্গা-মেহেরপুর-মুজিবনগর সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ঝিনাইদহ অংশে ২০.০০ কিঃমিঃ-এর জন্য ৬৭৪৭.০০ লক্ষ টাকায় ১১ জন ঠিকাদারের সাথে চুক্তি করা হয়েছে। চুক্তিকৃত ১০টি প্যাকেজের বাস্তবায়ন কাজ শেষ হয়েছে। ০১টি প্যাকেজের চুক্তি বাতিলপূর্বক পুনরায় দরপত্র আহবান করা হয়েছে। ঝিনাইদহ-হরিণাকুন্ডু সড়ক উন্নয়ন এবং সার্কিট হাউজ  লিংক রোড মজবুতকরণ ও প্রশস্তকরণ প্রকল্পের আওতায় দরপত্র অনুযায়ী ৩টি প্যাকেজের কাজ শেষ হয়েছে। খালিশপুর-মহেশপুর-দত্তনগর-জিন্নানগর-যাদবপুর মহাসড়কের প্রশস্তকরণ ও উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ৪টি প্যাকেজের আওতায় ৩টি প্যাকেজের কাজ চলমান আছে। এছাড়া, পিএমপি মাইনর/রুটিন মেইনটেন্যান্স এর বিভাগীয়ভাবে মেরামত কার্যক্রমের মাধ্যমে বর্ষা মৌসুমের অতিবৃষ্টির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তাসমূহ বিশেষ করে জাতীয় ও আঞ্চলিক সড়কসমূহ যোগাযোগ উপযোগী করে রাখার জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। তাছাড়া, পিএমপি সেতু/কালভার্ট এর আওতায় প্রকল্পের কাজ চলমান আছে। ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া এবং ঝিনাইদহ-যশোর রাস্তার যে সকল স্থানে রাস্তা নষ্ট হয়ে গিয়েছে সে সব স্থানের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে এবং শীঘ্রই অবশিষ্ট কাজ শেষ করা হবে। জেলার মুজিব চত্বর হতে হামদহ পর্যন্ত রাস্তা চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে, হরিণাকুন্ডু নব নির্মিত রাস্তায় ফাটল, চুটলিয়া রাস্তার পিচ্ছিলতাসহ এ রাস্তার মোড়ে রাতের বেলা গাড়ী পার্কিং করে যান চলাচলের বিঘ্ন সৃষ্টির বিষয়ে আলোচনা হয়। সেসাথে গুরুত্বপূর্ণ অফিসের সামনে রাস্তায় উপর স্পিড ব্রেকার, রোড মার্কিংসহ দুর্ঘটনা প্রতিরোধের জন্য প্রয়োজনীয় সাইন বোর্ড স্থাপনের জন্য সভায় আলোচনা হয়।

 

ক) বিভাগীয় সকল কাজ মানসম্মতভাবে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে দ্রুততার সাথে সম্পন্নের জন্য তদারকি অব্যাহত রাখতে হবে।

খ) সড়কে রোড সাইনবোর্ড ও গতিসীমা সাইনবোর্ড বিভিন্ন স্থানে প্রদর্শন যোগ্য রাখতে হবে।

গ) প্রেরণা ৭১ থেকে পোস্ট অফিস পর্যন্ত ডিভাইডারের Half Circle কেটে ফেলতে হবে।

ঘ) বিটুমিন খারাপ হলে সঙ্গে সঙ্গে কাজ বন্ধ করতে হবে।

ঙ) হরিণাকুন্ডু রাস্তার ফাটল, চুটলিয়া রাস্তার পিচ্ছিলতাসহ রাস্তার মোড়ে  রাতের বেলা গাড়ী পার্কিং-এর বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করতে হবে।

 

 

নির্বাহী প্রকৌশলী 

সড়ক ও জনপথ  বিভাগ। সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসার।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

১২

জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর:

নির্বাহী প্রকৌশলীর প্রতিনিধি জানান, থানা সদর ও গ্রোথ সেন্টারে অবস্থিত পৌরসভায় পানি সরবরাহ প্রকল্পের (২য় পর্ব) আওতায় শৈলকুপা, কালীগঞ্জ, কোটচাঁদপুর, মহেশপুরের  উপজেলায়  ৬৫.৬৪ কিঃমিঃ কাজের মধ্যে ৬০.৬৯ কিঃমিঃ শেষ হয়েছে। পল্লী অঞ্চলে পানি সরবরাহ প্রকল্পের আওতায় মোট ৮৫৭টি নলকূপ স্থাপনের কাজ শেষ হয়েছে। জাতীয় স্যানিটেশন (৩য় পর্ব) প্রকল্পের আওতায় ১১টি কমিউনিটি ল্যাট্রিনে ১৪৯০ সেট রিংস্লাব স্থাপনের জন্য বরাদ্দ পাওয়া গেছে।

 

 

ক) প্রকল্পের কাজ বিধি মোতাবেক স্বচ্ছতার সাথে সম্পন্ন করতে হবে।

খ) শতভাগ স্যানিটেশন অর্জনে কাজ অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

নির্বাহী প্রকৌশলী জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

(০৪)

 

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

১৩

এল.জি.ই.ডি:

নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে পল্লী সড়ক ও কালভার্ট মেরামত কর্মসূচির আওতায় ১৬টি স্কিমের অনুকূলে ৫০৮.২৯০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ পাওয়া গেছে। ১১টি প্রকল্প সমাপ্ত এবং ৫টি চলমান। অসমাপ্ত স্কিমের অগ্রগতি ৮২%। বৃহত্তর যশোর জেলা অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় ১০টি স্কিমের অনুকূলে ৫৫২.২৬ লক্ষ টাকার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। ৮টি চলমান, ২টি বাতিল। অসমাপ্ত স্কিমের অগ্রগতি ৯৫%।  মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় ১টি স্কিমের অনুকূলে ১৬.৭১০ লক্ষ টাকার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। প্রকল্পটি চলমান। অসমাপ্ত স্কিমের অগ্রগতি ৯৫%। বাংলাদেশ ফলিত পুষ্টি গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (বারটান) এর অবকাঠামো নির্মাণ ও কার্যক্রম শক্তিশালীকরণ প্রকল্পের আওতায় ৩টি স্কিমের অনুকূলে ৪৯৮.৭০ লক্ষ টাকার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। ১টি সমাপ্ত, ২টি চলমান। অসমাপ্ত স্কিমের অগ্রগতি ৭৫%। অগ্রাধিকার ভিত্তিতে গুরুত্বপূর্ণ পল্লী অবকাঠামো উন্নয়ন শীর্ষক প্রকল্প-২ এর আওতায় ৫৫টি স্কিমের অনুকূলে ২০৪৩.৪৮০ লক্ষ টাকার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। ৪টি সমাপ্ত, ৫১টি চলমান। অসমাপ্ত স্কিমের অগ্রগতি ৭০%। বাংলাদেশ কৃষি অবকাঠামো উন্নয়ন কর্মসূচি প্রকল্প এর আওতায় ২টি স্কিমের অনুকূলে ৮৫১.৫৭০ লক্ষ টাকার বরাদ্দ পাওয়া গেছে। ১টি চলমান, ১টি দরপত্র গ্রহণের প্রক্রিয়া চলমান আছে। বিভিন্ন খাতে সর্বমোট ৪,৫৩,১৯৬.০০ টাকা রাজস্ব প্রাপ্তি হয়েছে, যা চালানের মাধ্যমে সরকারি কোষাগারে জমা করা হয়েছে। এছাড়া, মুক্তিযুদ্ধের ঐতিহাসিক স্থান সংরক্ষণ ও মুক্তিযুদ্ধ স্মৃতি যাদুঘর নির্মাণ এবং অসহায় মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বহুতল ভবন নির্মাণ প্রকল্পের কার্যক্রম শীঘ্রই শুরু হবে।

 

 ক) চলমান প্রকল্পসমূহের তদারকি অব্যাহত রাখতে হবে এবং অসমাপ্ত প্রকল্পের কাজে গুণগতমান বজায় রেখে যথা সময়ে কাজ সম্পাদন করতে হবে।

 

খ) সকল উন্নয়ন প্রকল্পের বিবরণ সম্বলিত সাইনবোর্ড প্রকল্প এলাকায় দৃশ্যমান স্থানে স্থাপন করতে হবে।

 

নির্বাহী প্রকৌশলী এলজিইডি/ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

১৪

 

পানি উন্নয়ন বোর্ড:

নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, জিকে সেচ প্রকল্পের আওতাধীন জিকে সেচ প্রকল্পের পুনর্বাসন প্রকল্প (ঝিনাইদহ অংশ)-এর ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের বাজেট প্রস্তবনা পাঠানো হয়েছে। বাজেট প্রাপ্তি সাপেক্ষে জরিপ কার্য সম্পাদন এবং প্রাক্কলন প্রস্তুতের কাজসহ দরপত্র আহবান করা হবে। সেসাথে এজেলার ৭টি নদী খননের প্রকল্প অনুমোদনের প্রস্তাব প্রেরণের বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়।

 

সংশ্লিষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সাথে সমন্বয়পূর্বক প্রকল্পের প্রাক্কলন প্রেরণের ব্যবস্থা নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সম্পন্ন করতে হবে।

 

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)/ নির্বাহী প্রকৌশলী,

পানি উন্নয়ন বোর্ড।

১৫

বিদ্যুৎ বিভাগ:

ক) ওজোপাডিকো লিঃ

নির্বাহী প্রকৌশলী, ওজোপাডিকোলিঃ জানান, ঝিনাইদহ জেলায় বিদ্যুতের সর্বোচ্চ  চাহিদা ৪৬.৭ মেগাওয়াট। তিনি আরো জানান যে, মেয়র কালীগঞ্জ, কোটচাঁদপুর ও মহেশপুর পৌরসভার এবং মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সের নিকট বিদ্যুৎ বিল বকেয়া পড়ে আছে। যাবতীয় বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য তিনি সভার মাধ্যমে অনুরোধ জানান। এছাড়া, সরকারি/আধা-সরকারি/বেসরকারি বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের লক্ষ্যে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। বিভিন্ন সরকারি অফিসের ডিজিটাল মিটার ব্যবহারের জন্য অনুরোধ করা হয়। মহেশপুর থানার বিদ্যুতের খুটি মেরামত করা প্রয়োজন মর্মে সভায় আলোচনা হয়।

 

 

মেয়র, মহেশপুরসহ সংশ্লিষ্ট সকল পৌরসভার সাথে আলোচনা সাপেক্ষে বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের  প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। মহেশপুর থানার বিদ্যুতের খুটি মেরামত করতে হবে।

 

 

নির্বাহী প্রকৌশলী

ওজোপাডিকো লিঃ/মেয়র, মহেশপুর পৌরসভাসহ সংশ্লিষ্ট সকল।

 

খ) পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি:

জেনারেল ম্যানেজার জানান, চলতি অর্থ বছরে জুলাই মাস পর্যন্ত নির্মিত লাইনের পরিমাণ ২৬৮৬.৩০ কিঃ মিঃ। সংযোগ প্রাপ্ত গ্রাহকের সংখ্যা ৩,২০,৬৪১ জন এবং মোট বিদ্যুতায়িত গ্রাম ১,০২৩টি। সরকারের ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে এ দপ্তর হতে টেলিটকের মাধ্যমে বিদ্যুৎ বিল গ্রহণ করা হচ্ছে। সে সাথে বকেয়া বিদ্যুৎ বিল পরিশোধের জন্য তিনি সভার মাধ্যমে অনুরোধ জানান। মহেশপুর, কালীগঞ্জ ও হরিণাকুন্ডু উপজেলাকে শতভাগ বিদ্যুতায়নের কার্যক্রম মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক খুব শীঘ্রই উদ্বোধন করবেন মর্মে তিনি সভাকে অবহিত করেন।

 

কাঙ্ক্ষিত মানের গ্রাহকসেবা প্রদান অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

জেনারেল ম্যানেজার,

পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি।

গ) পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি:

নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, তাঁদের দাপ্তরিক কার্যক্রম সঠিকভাবে চলছে। কোন সমস্যা নেই। তবে বিদ্যুতায়নের কাজ করতে গিয়ে রাস্তার পাশের গাছপালার ডাল অপসারণে বাধার সম্মূখীন হচ্ছেন।

 

বিদ্যুৎ সঞ্চালন সতর্কতার সাথে করতে হবে। মাঠ পর্যায়ে কাজ করতে গিয়ে সমস্যা হলে ইউএনওদের জানাতে হবে। গাছের ডালপালা কাটার পূর্বে মাইকিং করতে হবে।

 

ইউএনও (সকল)/নির্বাহী প্রকৌশলী পিজিসিবি।

         

(০৫)

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

১৬

 

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর:

উপপরিচালক জানান, দপ্তরের মাধ্যমে পরিবারভিত্তিক ঋণ (গ্রুপভিত্তিক), যুব ঋণ ও আত্মকর্মসংস্থান (একক ঋণ) এবং কর্মসংস্থান ও আত্মকর্মসংস্থান জোরদারকরণ এর আওতায় ঋণ প্রদান ও আদায় কার্যক্রম যথানিয়মে চলমান আছে। তাছাড়া, যুব প্রশিক্ষণ কর্মসূচির আওতায় পোশাক তৈরি, ব্লক প্রিন্টিং, কম্পিউটার প্রশিক্ষণ, গবাদি পশু, হাঁস-মুরগি পালন ও মৎস্য চাষ প্রশিক্ষণ, ইলেকট্রিক্যাল, ইলেক্ট্রনিক্স এ্যান্ড রেফ্রিজারেশন ট্রেড কোর্সে প্রশিক্ষণ অব্যাহত আছে। বিবেচ্য মাসে যুব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, জেলা ও  উপজেলা কার্যালয়ে প্রশিক্ষণরত ৯০ জন প্রশিক্ষণার্থীকে যৌতুক বিরোধী আন্দোলনে উদ্বুদ্ধ করা হয়।

 

সকল যুবক ও যুব মহিলাদের কর্মদক্ষ করার  ব্যবস্থাসহ সরকার কর্তৃক প্রদত্ত সকল সেবা প্রদানে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

 

 

উপপরিচালক,

যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর।

 

১৭

 

সমাজসেবা বিভাগ:

সহকারী পরিচালক, সমাজ সেবা জানান, পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রম, এসিডদগ্ধ ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের পুনর্বাসন কার্যক্রমে ঋণদান কর্মসূচি, শহর সমাজসেবা কার্যক্রমের আওতায় কম্পিউটার ও দর্জি বিজ্ঞান প্রশিক্ষণ কার্যক্রম, রোগী কল্যাণ সমিতির কার্যক্রম, বয়স্কভাতা প্রদান কার্যক্রম, অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধীদের ভাতা প্রদান কার্যক্রম, বিধবা ও স্বামী পরিত্যক্তা দুস্থ মহিলাদের ভাতা প্রদান কার্যক্রম, প্রতিবন্ধী শিক্ষা উপবৃত্তি প্রদান কার্যক্রম, হিজড়া বয়স্ক/বিশেষ ভাতা কার্যক্রম, হিজড়া শিক্ষা উপবৃত্তি কার্যক্রম, সরকারি শিশু পরিবার কার্যক্রম, সমন্বিত অন্ধ শিক্ষা কার্যক্রম এবং প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কার্যক্রমের মাধ্যমে সর্বসাধারণের সেবা প্রদান অব্যাহত আছে। ঝিনাইদহ জেলাকে ভিক্ষুক মুক্তকরণের চেষ্টা চলমান আছে।

 

ক) সেবা গ্রহীতারা যেন হয়রানির  শিকার না হয় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রেখে সরকার কর্তৃক প্রদত্ত ঋণ দান কর্মসূচিসহ সকল সেবাদান কার্যক্রম স্বচ্ছতার সাথে সম্পাদনের ব্যবস্থা নিতে হবে।

খ) ঝিনাইদহ জেলাকে ভিক্ষুকমুক্তকরণের কার্যক্রম জোরদার করতে হবে।

 

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ঝিনাইদহ সদর/

উপপরিচালক সমাজসেবা অধিদপ্তর।

 

১৮

 

বি আর ডি বি:

‘‘একটি বাড়ি একটি খামার’’ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নের অগ্রগতি সম্পর্কে আলোচনা:

উপপরিচালক জানান,‘‘একটি বাড়ি একটি খামার’’শীর্ষক প্রকল্পের কাজ অব্যাহত আছে। এ প্রকল্পের আওতায়  ১,৮৪৯টি সমিতিতে  ৫৫,৮০৮জন সদস্য আছে। ঝিনাইদহ জেলার ৬টি উপজেলায় ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে ঋণ বিতরণ করা হয়েছে ১৩২.৫০ লক্ষ টাকা, আদায়কৃত ঋণের পরিমাণ ১৭৮.৫৬ লক্ষ টাকা। বকেয়া আছে ২,৫৯৫ লক্ষ টাকা।

 

 

‘‘একটি বাড়ি একটি খামার’’ শীর্ষক প্রকল্পের ঋণ বিতরণ এবং প্রদত্ত ঋণ আদায়ের জন্য

তদারকি অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

উপপরিচালক বিআরডিবি/

উপজেলা নির্বাহী অফি- সার (সকল)।

১৯

 

মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর:

জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা জানান, এ অধিদপ্তর কর্তৃক দরিদ্র মায়েদের জন্য মাতৃত্বকালীন ভাতা, ভিজিডি (দুঃস্থ মহিলা উন্নয়ন) কর্মসূচি, মহিলাদের আত্মকর্মসংস্থানের জন্য ক্ষুদ্রঋণ কার্যক্রম, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ ঋণ তহবিল, ঘূর্ণায়মান (উৎপাদনমুখী) ঋণ তহবিল কার্যক্রম, জনসংখ্যা কর্মসূচি ঋণ (আইডিএ), কর্মজীবী ল্যাকটেটিং মাদার সহায়তা তহবিল সংক্রান্ত কার্যক্রম, মহিলাদের প্রশিক্ষণ কার্যক্রম, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ কার্যক্রম অব্যাহত আছে। জুলাই ২০১৮ মাসে বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে উঠান বৈঠক ও আলোচনা সভা করা হয়েছে ৩৩টি। অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা ৩,০৫২ জন। উপজেলা প্রশাসন এবং নারী উন্নয়ন ফোরামের সহযোগিতায় ৮টি বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ করা হয়েছে। এছাড়া, উপজেলা পর্যায়ে গঠিত  ৬টি নারী উন্নয়ন ফোরামসহ স্বেচ্ছাসেবী মহিলা সমিতিসমূহের মাধ্যমে যৌতুক ও বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, আইন সহায়তা ও সচেতনতামূলক উঠান বৈঠক কার্যক্রম অব্যাহত আছে।

 

সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় বিভিন্ন ভাতা প্রদান কার্যক্রমসহ প্রশিক্ষণ স্বচ্ছতার সাথে সম্পাদন করতে হবে। বাল্যবিবাহ রোধ এবং যৌতুকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার জন্য কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

জেলা মহিলা

বিষয়ক

কর্মকর্তা।

 

 

২০

 

জেলা তথ্য বিভাগ:

জেলা তথ্য অফিসার জানান, সরকারি নির্দেশনায় সকল প্রকার প্রচার প্রচারণাসহ অন্যান্য কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিতরণ করা হয়েছে ০২ কপি। এছাড়া, চলচ্চিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে ১৭টি, সড়কে প্রচার করা হয়েছে ১২টি এবং পোস্টার/পুস্তিকা বিতরণ করা হয়েছে ২,৭৫০ কপি। অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে।

 

সকল প্রকার প্রচার-প্রচারণাসহ সরকারি  উন্নয়নমূলক কার্যক্রম জন সম্মুখে তুলে ধরতে হবে।

 

 

জেলা তথ্য

অফিসার।

 

 

 

 

 

 

(০৬)

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

২১

জেলা মার্কেটিং অফিস:

জেলা মার্কেটিং অফিসার জানান, গত মাসের তুলনায় এ মাসে আটা, ডাল, ছোলা, খেসারি, পিয়াজ, রসুন, শুকনা মরিচ, সবজি, বেগুন ও আলুর মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে এবং ডাল (মসুর) কাঁচা মরিচ, আদা ও চিনির মূল্য হ্রাস পেয়েছে। অন্যান্য পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল আছে।

 

নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য স্থিতিশীল রাখতে ও ন্যায্য মূল্য নিশ্চিত করতে নিয়মিত বাজার মনিটরিং করতে হবে। মোবাইল কোর্ট বৃদ্ধি করতে হবে।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)/ জেলা মার্কেটিং অফিসার।

২২

বাংলাদেশ শিশু একাডেমি:

জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা জানান, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্দ্ধু বিষয়ক রচনা, চিত্রাঙ্কন ও কবিতা আবৃত্তি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়। এছাড়া, শিশুদের মৌসুমি প্রতিযোগিতা ২০১৮ আগামী ৪-৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ উপজেলা পর্যায়ে, ৭-৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ জেলা পর্যায়ে, ১০-১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ বিভাগীয় পর্যায়ে এবং ১৩-১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রি. তারিখ বিভাগীয় পর্যায়ে অনুষ্ঠিত হবে মর্মে সভায় জানান। সংগীত, নৃত্য, চিত্রাঙ্কন ও তবলার প্রশিক্ষণ বিভাগের এবং প্রাক প্রাথমিক ও শিশু বিকাশ বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের ২০১৮ সালের ক্লাস স্বাভাবিক নিয়মে চলছে।

 

সরকার কর্তৃক নির্দেশিত সকল কার্যক্রম, শিশুদের মেধা বিকাশে সকল অনুষ্ঠান সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন  করতে হবে।

 

 

জেলা শিশু বিষয়ক কর্মকর্তা।

২৩

পৌরসভা:

মেয়র, ঝিনাইদহ পৌরসভার জানান, ঝিনাইদহ পৌরসভা তৃতীয় নগর পরিচালনা ও অবকাঠামো উন্নতিকরণ (সেক্টর) প্রকল্পভুক্ত হয়েছে। উক্ত প্রকল্পের আওতায় ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে ০১ (এক)টি প্যাকেজে ১২ (বার) কোটি টাকার ১৪টি উপপ্রকল্পের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এছাড়া, এডিপি ও রাজস্ব উন্নয়ন কর্মসূচির আওতায় ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে বাস্তবায়নের জন্য ৩৫টি প্রকল্পের কাজ চলমান। জুলাই ২০১৮ মাসে মোট ৪২৪টি জন্ম এবং ৪৫টি মৃত্যু নিবন্ধন করা হয়েছে। জন্ম নিবন্ধন ও সনদ বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। শহরে রাস্তার উপর ময়লা রাখাসহ থানার সামনে ড্রেনের উপর স্লাব ভেঙ্গে জনসাধারণের চলাচলে সমস্যা হচ্ছে মর্মে সভায় আলোচনা হয়।

 

সকল কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে হবে এবং রাস্তার উপর ময়লা পরিস্কার করতে হবে এবং থানার সামনে ড্রেনের উপর স্লাব স্থাপন করতে হবে । সে সাথে ভিক্ষুক মুক্তকরণে পৌরসভাকে বিশেষ ভূমিকা পালন করতে হবে।

 

মেয়র

সকল  পৌরসভা।

২৪

প্রাণিসম্পদ বিভাগ:

জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা জানান, তাঁর দফতরের আওতায় জুলাই ২০১৮ মাসে গবাদি পশু ২৪,৫১৬টি, হাঁস-মুরগি ১,৮৬,৬০০০টির টিকা প্রদান করা হয়েছে। গাভী কৃত্রিম প্রজনন করা হয়েছে ৮,৫৭৬টি। গাভী হতে ১,৩০৭টি এঁড়ে বাছুর এবং ১.০৫৫টি বকনা বাছুর উৎপাদন করা হয়েছে। টিকাবীজ এবং কৃত্রিম প্রজননের মাধ্যমে রাজস্ব আদায় হয়েছে ২,২৬,৪৭৯/- টাকা। দেশীয় গবাদি পশু পালনে কৃষকদের উৎসাহ প্রদান অব্যাহত আছে। তিনি আসন্ন ইদুল আযহায় নির্দিষ্ট স্থানে পশু জবাই করার বিষয় সভাকে অবহিত করেন।

 

গবাদি পশুর চিকিৎসা সেবা প্রসারিত করার বিষয়ে আরও যত্নশীল হতে হবে এবং নির্দিষ্ট স্থানে পশু জবাই করতে হবে। জনবল সঙ্কটের বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে জানাতে হবে।

 

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)/জেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা।

২৫

মৎস্য বিভাগ:

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা জানান, মৎস্য চাষে ক্ষুদ্র ঋণ বিতরণ ও আদায় কার্যক্রম, বিল ও বাওড় মৎস্য উন্নয়ন এবং ব্যবস্থাপনা প্রকল্পের কার্যক্রম, মৎস্য উৎপাদনে মাছ চাষীদের পরামর্শ প্রদান যথারীতি চলমান আছে। তিনি আরো উল্লেখ করেন, মৎস্য সংরক্ষণ আইন বাস্তবায়ন, মৎস্য খাদ্যমান পরীক্ষা সংক্রান্ত কার্যক্রম, রোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ পরিদর্শন, রোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ পরামর্শ, জেলেদের নিবন্ধন ও পরিচয়পত্র প্রদান, উন্মুক্ত জলাশয়ে পোনামাছ অবমুক্তকরণ ইত্যাদি কার্যক্রম চলমান। মৎস্য বীজ উৎপাদন খামারের ২০১৮ সালের বার্ষিক উৎপাদন পরিকল্পনা মোতাবেক কার্যক্রম চলছে। শৈলকুপা মিনি হ্যাচারির ২০১৮ সালের বার্ষিক উৎপাদন পরিকল্পনা অনুমোদিত হয়েছে। তিনি ১৮-২৪ জুলাই ২০১৮ খ্রিঃ তারিখ জাতীয়  মৎস্য সপ্তাহ সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে মর্মে সভাকে জানান।

 

 

(ক) দেশীয় প্রজাতির মাছ সংরক্ষণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

(খ) মৎস্য বীজ উৎপাদন খামার ও শৈলকুপা মিনি হ্যাচারির উৎপাদন পরিকল্পনা অনুযায়ী বাস্তবায়নে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

 

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা/ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল) ঝিনাইদহ।

 

 

 

 

 

 

 

 

(০৭)

 

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

২৬

মোবারকগঞ্জ সুগার মিলস্ লি:

ব্যবস্থাপনা পরিচালক জানান, বর্তমানে চিনির মজুদের পরিমাণ ৩,৯৬৮.৯৬ মেঃ টন। বর্তমান বিক্রয়মূল্য প্রতি মেঃ টন ৫০,০০০/- টাকা। চিটাগুড় মজুদের পরিমাণ ৩,৯৭৯.৫২ মেঃ টন। বর্তমান বিক্রয়মূল্য প্রতি মেঃ টন ১৭,৪০০/- টাকা। ২০১৭-১৮ অর্থ বছরে আখ মাড়াইয়ের লক্ষ্যমাত্রা ১,০৫,০০০.০০ মেঃ টন। দেশের চিনির বাজার নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে শিল্প মন্ত্রণালয় ও বিএসএফআইসি সদর দপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক নিয়োজিত ডিলারদের মাধ্যমে বিভিন্ন চিনিকল হতে চিনি বিতরণ করা হচ্ছে। পাশাপাশি প্যাকেটজাত চিনি প্রতি ১ কেজি প্যাকেট মিল রেট ৬৫/- টাকা ও সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ৭০/- টাকা এবং ২ কেজি প্যাকেট মিল রেট টাকা ১৩০/- টাকা ও সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ১৩৫/- টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। প্যাকেটজাত চিনির প্যাকেটে মিলের লোগো ব্যবহার করা হয়। রোপনকৃত আখের পরিচর্যা অব্যাহত আছে। তিনি দেশীয় চিনি ব্যবহারে সকলকে অনুরোধ জানান। তিনি এ মিলে লাল চিনি হতে সাদা চিনি উৎপাদনের বিষয়টি  একনেকে অনুমোদন লাভ করেছে মর্মে সভাকে অবহিত করেন।

 

 

দেশে  উৎপাদিত  চিনি দ্বারা চিনির চাহিদা মেটানোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে এবং পূর্বের ন্যায় স্থানীয় বাজারে গ্রাহক পর্যায়ে চিনি বিক্রয় অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

ব্যবস্থাপনা পরিচালক,

মোবারকগঞ্জ সুগার মিলস্ লিঃ।

 

 

 

 

 

২৭

পরিসংখ্যান বিভাগ:

উপপরিচালক, জেলা পরিসংখ্যান জানান, ২৪টি নমুনা এলাকার জুলাই ২০১৮ মাসের জন্ম, মৃত্যুর তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে এবং সংগৃহীত তথ্য পরবর্তী প্রক্রিয়াকরণের উদ্দেশ্যে বিবিএস সদর দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে। এ জেলার ৪টি বাজার হতে এ মাসের বাজার দর সংগ্রহ করে সংগৃহীত তথ্য বিবিএস সদর দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে। পরবর্তী তথ্য সংগ্রহ কার্যক্রম ভালোভাবে চলছে। জেলার নির্ধারিত ১৫৯টি দাগ গুচ্ছ হতে কৃষি ভূমির বাস্তব ব্যবহারের তথ্য সংগ্রহ, বিভিন্ন স্থায়ী ও অস্থায়ী ফসলের হিসাব, ফসল উৎপাদন, ফলন হার, কৃষি মজুরি ও উৎপাদন খরচ হার নিরূপণ করে বিবিএস সদর দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

 

তথ্যের পুনরাবৃত্তি অথবা কোন তথ্য যেন বাদ না যায় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। সে সাথে সরকার কর্তৃক প্রদত্ত সকল কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করতে হবে।                 

 

উপপরিচালক পরিসংখ্যান বিভাগ।

২৮

উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো :

সহকারী পরিচালক জানান, জেলা উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরোর অধীন বর্তমান এ জেলায় চলমান কোন কার্যক্রম নেই। তবে, মৌলিক সাক্ষরতা প্রকল্প (৬৪ জেলা) কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে ডাটা এন্ট্রি, শিক্ষার্থীদের তালিকা প্রস্তুতকরণ ও কেন্দ্রের স্থান নির্ধারণ কাজ সমাপ্ত হয়েছে। ইতোমধ্যে মূলকর্মসূচির ৩৬,০০০ বই পাওয়া গিয়েছে। খুব শীঘ্রই শিক্ষাদান কার্যক্রম শুরু হবে।

 

সকল কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করতে হবে।

 

সহকারী পরিচালক, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা ব্যুরো ।

 

২৯

ত্রাণ ও পুনর্বাসন অফিস:

জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা (ভা:) জানান, কাবিখা (সাধারণ/বিশেষ), টিআর (বিশেষ/সাধারণ) খাতে ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের বরাদ্দ পাওয়া যায়নি। জিআর (চাল) ১৭৫ মেঃ টন, জি,আর (ক্যাশ) ২,৫০,০০০/-টাকা, উপবরাদ্দের কার্যক্রম চলমান আছে। ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যক্তি/অসহায় ব্যক্তিদের টেউটিন/অর্থ প্রদানের বিষয়ে সভায় আলোচনা হয়।

 

টি,আর/কাবিখা এবং বিশেষ বরাদ্দের কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করতে হবে। ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ ব্যক্তি/অসহায় ব্যক্তিদের তথ্য প্রদান করতে হবে।

 

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)/ জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা।

 

 ৩০

জেলা সমবায় অফিস:

জেলা সমবায় অফিসারের প্রতিনিধি জানান, জেলায় মোট সমবায় সমিতির সংখ্যা ১,৮৫৯টি। এগুলোর মধ্যে কেন্দ্রীয় সমিতির সংখ্যা ১৬টি এবং প্রাথমিক সমিতির সংখ্যা ১,৮৪৩টি। প্রাথমিক সমিতির মধ্যে সমবায় বিভাগাধীন সমিতি ৫১১টি। সমবায় বিভাগীয় প্রাথমিক সমিতির মধ্যে একাধিক জেলাব্যাপী কার্যক্রম পরিচালনাকারী সমিতির সংখ্যা ০৪টি এবং বহুমুখী সমবায় সমিতির সংখ্যা ২৫টি। ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে জেলায় সমবায় সমিতিসমূহের ধার্যকৃত অডিট ফি-এর পরিমাণ ৩,৪৭,৩৬০/- টাকার মধ্যে জুলাই ২০১৮ পর্যন্ত আদায়কৃত অডিট ফি-এর পরিমাণ ৩,৪৭,৩৬০/-টাকা। এ জেলায় আশ্রয়ণ প্রকল্প ১৫টি। ১৫টি প্রকল্পে ঋণ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।

 

কোন ব্যক্তি/প্রতিষ্ঠান যেন প্রতারণার মাধ্যমে নিরীহ জনসাধারণের অর্থ আত্মসাৎ করতে না পারে সেজন্য সজাগ থাকতে হবে এবং জোরালো পদক্ষেপ গ্রহণ  করতে হবে।

 

জেলা সমবায় কর্মকর্তা।

 

 

 

 

 

 

(০৮)

 

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

৩১

জেলা রেজিস্ট্রারের কার্যালয়:

জেলা রেজিস্ট্রার জানান, জেলার ৪টি উপজেলায় সাব রেজিস্ট্রারের নিজস্ব ভবন না থাকায় অফিসের কার্যক্রম পরিচালনায় নানাবিধ সমস্যার সৃষ্টি হয়। জুলাই ২০১৮ মাসে মোট দলিল সম্পাদন হয়েছে ৪,৯৩৯টি যার মাধ্যমে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৪,০৪,৭৯,১৭৫.০০ টাকা, ব্যয় হয়েছে ৯,৪৬,১২৬.০০ টাকা। অবশিষ্ট আছে ৬,৯৫,৩৩,০৪৮.০০ টাকা, যা সরকারি খাতে জমা করা হয়েছে।  উপজেলা সাবরেজিস্ট্রি অফিস নির্মাণের লক্ষ্যে কালীগঞ্জ, মহেশপুর ও শৈলকুপা উপজেলার জমি অধিগ্রহণের কার্যক্রম ধীর গতিতে চলছে মর্মে সভায় মত প্রকাশ করা হয়।

 

ক) জনসাধারণ যাতে হয়রানির শিকার না হয়, সে দিকে সর্বদা সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে এবং অফিস দালাল মুক্ত হতে হবে।

খ) জমি অধিগ্রহণের কার্যক্রম গতিশীল করতে হবে।

 

জেলা   রেজিস্ট্রার/ সাবরেজিস্ট্রার (সকল)।

৩২

টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ:

অধ্যক্ষ, টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ জানান, এসএসসি (ভোকেশনাল), নবম ও দশম শ্রেণির ক্লাস চলছে। এইচএসসি (ভোকেশনাল) একাদশ ও দ্বাদশ শ্রেণির  বিভিন্ন কোর্সের ৩৬০ ঘন্টা ট্রেনিং চলমান আছে।

 

শিক্ষার মানোন্নয়নে প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে।

 

অধ্যক্ষ,   টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ।

৩৩

ইসলামিক ফাউন্ডেশন:

উপপরিচালক জানান, মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম, ধর্মীয় অনুষ্ঠানের আয়োজন, সভা/সেমিনার ইত্যাদি কার্যক্রম যথারীতি চলছে। মসজিদভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রমের আওতায় ২০১৮ শিক্ষা বছরে ৬টি উপজেলায় প্রাক-প্রাথমিক কেন্দ্র ৩৮৫টি, সহজ কুরআন শিক্ষা কেন্দ্র ৪১৭টি ও ১২টি বয়স্ক শিক্ষা কেন্দ্র চালু আছে। ৬টি উপজেলায় ১২টি দারুল আরকাম মাদ্রাসা, ০৬টি মডেল রিসোর্স সেন্টার এবং ১৭টি সাধারণ সেন্টার রয়েছে। কেন্দ্রগুলি উপপরিচালক, ফিল্ড সুপারভাইজারগণ মডেল কেয়ারটেকার ও সাধারণ কেয়ারটেকারগণ নিয়মিতভাবে পরিদর্শন করে থাকে। দুর্নীতি প্রতিরোধ, জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস ও ইভটিজিং বিরোধী জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে  উদ্বুদ্ধকরণ সভাসহ সকল প্রকার বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালিত হচ্ছে। সভায় মডেল মসজিদ নির্মাণের বিষয়ে আলোচনা হয়।

 

জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, মাদক, আত্মহত্যা, ইভটিজিং ও যৌতুকের কুফল সম্পর্কে মসজিদে আলোচনার জন্য খতিব/ইমামগণকে নির্দেশনা দিতে হবে। সদর উপজেলার মডেল মসজিদ লাউদিয়ার পরিবর্তে পানি উন্নয়ন বোর্ডের উল্টোদিকে মারকাস্ মসজিদের স্থানে নির্মাণ করা হবে।

 

উপপরিচালক, ইসলামিক ফাউন্ডেশন।

৩৪

জেলা আনসার ও ভিডিপি:

 জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও ভিডিপি সভায় জানান, দাপ্তরিক কার্যক্রম ভালোভাবে চলছে। কোন অসুবিধা নেই।

 

কার্যপত্র প্রেরণ করতে হবে।  সরকার কর্তৃক অর্পিত দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করতে হবে।

 

জেলা কমান্ড্যান্ট, আনসার ও ভিডিপি।

৩৫

জেলা ক্রীড়া অফিস:

জেলা ক্রীড়া অফিসার অনুমতি সাপেক্ষে সভায় অনুপস্থিত আছেন। বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ (অনূর্ধ্ব ১৭) ১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ হতে উপজেলা পর্যায়ে শুরু হয়ে পর্যায়ক্রমে বিভাগীয় পর্যায়ে গিয়ে সমাপ্তি লাভ করেব। এ খেলা সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে সমাপ্তির জন্য সভায় আলোচনা হয়।

 

সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকতে হবে। সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে খেলার সমাপ্তি করতে হবে।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)/  জেলা ক্রীড়া অফিসার।                         

৩৬

টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লি:

বিভাগীয় প্রকৌশলী সভায় অনুপস্থিত থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না।

 

কার্যপত্র প্রেরণ করতে হবে। সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকতে হবে।

 

বিভাগীয় প্রকৌশলী

টেলিকম।

 

 ৩৭

বিএডিসি (বীজ বিপণন):

সিনিয়র সহকারী পরিচালক জানান, এ বিভাগে জুলাই ২০১৮ মাসে আমন ধানের বীজ পাওয়া গিয়েছে সর্বমোট ৯০,৪৮৩ কেজি। বিক্রি হয়েছে ৮৮,৭২৩ কেজি এবং বিক্রি শেষে অবশিষ্ট আছে ১,৭৬০ কেজি।

 

বীজের গুণগতমান নিশ্চিত করতে হবে এবং ভেজালমুক্ত বীজ কৃষকদের নিকট দ্রুত বিতরণ করতে হবে।

 

সহকারী পরিচালক বিএডিসি

(বীজবিপণন)।

৩৮

বিএডিসি (ক্ষুদ্রসেচ):

সহকারী প্রকৌশলী জানান, ২০১৮-১৯ অর্থ বছরের সম্পাদনযোগ্য স্কীমের তালিকা যশোরে প্রকল্প দপ্তরে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়া,  ৫১টি গভীর নলকূপ, ০১টি এলএলপি পাম্প মাঠ পর্যায়ে সেচ প্রদানের জন্য চালু আছে। দাপ্তরিক অন্যান্য কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে চলছে।

 

যথাসময়ে সেচ প্রদানের মাধ্যমে প্রান্তিক চাষীদের সকল প্রকার কৃষি আবাদে সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে হবে।

 

সহকারী প্রকৌশলী বিএডিসি

(ক্ষুদ্র সেচ)।

(০৯)

 

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

৩৯

বিআরটিএ:

সহকারী পরিচালক, বিআরটিএ জানান যে, জুলাই ২০১৮ মাসে মোটরযান রেজিস্ট্রেশন, ফিটনেস, ট্যাক্স টোকেন, পারমিট ও ড্রাইভিং লাইসেন্স ফি বাবদ ১,০৭,৮৩,৫০০/-টাকা রাজস্ব আদায় হয়েছে। অফিসের অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে।

 

 

জনসাধারণ যাতে হয়রানির শিকার না হয়,  সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।

 

সহকারী পরিচালক,

বিআরটিএ।

৪০

সঞ্চয় অধিদপ্তর:

সহকারী পরিচালক জানান, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে বিভিন্ন প্রকার সঞ্চয়পত্র বিক্রয়ের মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা ৮৫.০০ কোটি টাকা। জুলাই ২০১৮ পর্যন্ত অর্জিত হয়েছে ১৪.১২ কোটি টাকা। চলতি মাসে বিভিন্ন প্রকার সঞ্চয়পত্রে বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ২৪৮ জন। বিবেচ্য মাস পর্যন্ত বিভিন্ন সঞ্চয়পত্রের উপর উৎসে কর কর্তন করা হয়েছে ১০,৮৮,৪২১/- টাকা।

                                                             

 

লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী কার্যক্রম সম্পন্ন করতে হবে।

 

সহকারী পরিচালক

জেলা সঞ্চয় অফিস।

৪১

জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি অফিস:

সহকারী পরিচালক জানান, ১৯৭৬ সাল থেকে জুলাই ২০১৮ পর্যন্ত ঝিনাইদহ জেলার বিদেশগামী কর্মীর সংখ্যা পুরুষ ৬৭,৮১৮জন এবং মহিলা ৭,২৬৮জন, মোট ৭৫,০৮৬জন। জুলাই ২০১৮ মাসে বিদেশগামী পুরষ ১,১২৫জন এবং মহিলা ২৬জন, মোট ১,১৫১জন। প্রবাসী মৃত কর্মীর লাশ পরিবহন, দাফন-কাফন/আর্থিক অনুদান/মৃত্যুজনিত ক্ষতিপূরণ বাবদ জুলাই ২০১৮ মাস পর্যন্ত ৪০,৮০,০০০/- টাকা, আর্থিক অনুদান ৩,০৯,২৫,০০০/-টাকা এবং ক্ষতিপূরণ/বকেয়া বেতন বাবদ ১,৪৭,৩১,৪৫৫/- টাকা ও  ২৬,৩৪৩/- টাকা বাইনেম ড্রাফটের মাধ্যমে আদায় করে মৃতের পরিবারের মধ্যে বিতরণ করা হয়। প্রবাসী কর্মীগণের মেধাবী সন্তানদের শিক্ষা বৃত্তির কর্মসূচি অব্যাহত আছে।

 

 

জনশক্তি রপ্তানিতে বিদেশগামীরা যাতে ভোগান্তির মধ্যে না পড়ে এবং অবৈধভাবে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে কেউ যাতে বিদেশ গমন না করে সে বিষয়ে  সকলকে সচেতন করতে হবে।

 

সহকারী পরিচালক,

জেলা কর্মসংস্থান  ও

জনশক্তি অফিস।

৪২

বন বিভাগ:

সহকারি বন সংরক্ষক জানান, বর্তমান অর্থ বছরে জেলার আর্থ সামাজিক উন্নয়ন, পরিবেশ সংরক্ষণ এবং বৃক্ষরোপণ অভিযান সফলভাবে বাস্তবায়নের জন্য সামাজিক বনায়ন ও নার্সারি  প্রশিক্ষণ কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে। জেলার ৬টি উপজেলায়  বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ৩০ লক্ষ শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে ৩৬,০০০টি চারা রোপনের কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। বৃক্ষমেলাও সুন্দরভাবে সমাপ্ত হয়েছে।

 

সামাজিক উন্নয়ন ও পরিবেশ সংরক্ষণে বৃক্ষরোপণ এবং সৃজিত বাগানের তদারকি অব্যাহত রাখতে হবে।

 

সহকারী বন সংরক্ষক।

৪৩

জেলা নির্বাচন অফিস:

জেলা নির্বাচন অফিসার জানান, ঝিনাইদহ সদর উপজেলার স্মার্ট কার্ড বিতরণ  কাজ ৯আগস্ট ২০১৮ হতে শুরু হয়েছে। এছাড়া, দাপ্তরিক অন্যান্য কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে চলছে।

 

বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করতে হবে।

 

জেলা নির্বাচন অফিসার।

৪৪

উপ-কর কমিশনারের কার্যালয়:

সহকারী কর কমিশনার জানান, ২০১৮-১৯ অর্থবছরের লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী বিবেচ্য মাসে সাটির্টফিকেট মামলা বাবদ আদায় হয়েছে ১৩,৩৬,১৫২ টাকা। জুলাই ২০১৮ মাস পর্যন্ত প্রাপ্ত মোট রিটার্ন সংখ্যা ৪৩০টি। রিটার্নের সাথে আদায় ১১,০৫,৫৭০/- টাকা। টিআইএন সনদপত্র প্রদান ৬০টি।

 

লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী কর আদায় অব্যাহত রাখতে হবে। প্রয়োজনে সেমিনার /

আলোচনা সভা করতে হবে।

 

সহকারী কর কমিশনার।

৪৫

পিটিআই:

সুপারিনটেনডেন্ট, পিটিআই জানান, ২০১৮-১৯ শিক্ষা বর্ষের ডিপিএড প্রশিক্ষণ কোর্স শেষ হয়েছে। পিটিআই লাইব্রেরিতে মুক্তিযুদ্ধ ও বঙ্গবন্ধু কর্ণার স্থাপন এবং জেলা প্রশাসক, ঝিনাইদহ ও বিভাগীয় কমিশনার মহোদয় কর্তৃক উদ্বোধন করা হয়েছে।

 

 

বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করতে হবে।

 

 

সুপারিনটেনডেন্ট পিটিআই ।

 

 ৪৬

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স বিভাগ:

উপসহকারী পরিচালক জানান, বিবেচ্য মাসে ০৮টি অগ্নিকান্ড সংঘটিত হয়েছে এবং আগুনে পুড়ে আনুমানিক ক্ষতির পরিমাণ ৯২,০০০/- টাকা; আনুমানিক ৪,৮০,০০০/- টাকার সম্পদ উদ্ধার করা হয়েছে। আলোচ্য মাসে ১০টি সড়ক দুর্ঘটনা সংঘটিত হয়েছে, সড়ক দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা ০১জন, আহত ১২জন। অ্যাম্বুলেন্স কলের সংখ্যা ১৭টি, ফ্রি কলের সংখ্যা ১৫টি ও রোগী পরিবহনের সংখ্যা ১৪জন। এ মাসে রোগী পরিবহন বাবদ ৫৩১/- টাকা আদায় হয়েছে।

 

 

বিভাগীয় কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করতে হবে।

 

 

উপসহকারী পরিচালক, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স।

         

 

 

 

 

(১০)

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

৪৭

বিসিক:

উপব্যবস্থাপক, বিসিক জানান, শিল্প উদ্যোক্তা চিহ্নিতকরণ, শিল্প উদ্যোক্তা উন্নয়ন, প্রকল্প প্রণয়ন ও মূল্যায়ণ, ঋণ ব্যবস্থাকরণ/সহায়তাকরণ, উদ্যোক্তাদের নিজস্ব বিনিয়োগে শিল্প স্থাপন, শিল্প ইউনিট নিবন্ধন, ঋণ বিতরণকৃত প্রকল্প বাস্তবায়নে তদারকি, ঋণ আদায়ের জন্য শিল্প ইউনিট পরিদর্শন, শিল্প নগরীর প্লট বরাদ্দ এবং কর্মসংস্থান কার্যাবলি যথারীতি চলছে। তিনি আরও জানান, শিল্প নগরীর জমির কিস্তি, ভূমি উন্নয়ন কর ও সার্ভিস চার্জ আদায়যোগ্য ১৬৭.৮০ লক্ষ টাকার মধ্যে এ পর্যন্ত আদায় হয়েছে ১৬০.২৪ লক্ষ টাকা। আদায়ের হার ৯৬%।

 

উদ্দেশ্যানুযায়ী প্লট ব্যবহৃত হচ্ছে কিনা সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে এবং অন্যান্য কার্যক্রম সন্তোষজনকভাবে চালিয়ে যেতে হবে।

 

উপব্যবস্থাপক, বিসিক।

 

  ৪৮

পাট অধিদপ্তর:

মুখ্য পরিদর্শক সভায় অনুপস্থিত থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না।

 

কার্যপত্র প্রেরণ করতে হবে এবং সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকতে হবে।

 

মুখ্য পরিদর্শক,

পাট অধিদপ্তর।

৪৯

ডাক বিভাগ:

পোস্টমাস্টার সভায় অনুপস্থিত থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না। পোস্ট অফিসের সামনে মদমাদক দ্রব্য বিক্রির বিষয়টি সভায় আলোচনা হয়।

 

ক) কার্যপত্র প্রেরণ করতে হবে এবং সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকতে হবে।

খ) মাদক বিক্রির দোকান উচ্ছেদ করতে হবে।

 

বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট/ পোস্ট মাস্টার, প্রধান ডাকঘর।

৫০

আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস:

উপসহকারী পরিচালক জানান, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসে এমআরপি (মেশিন রিডেবল পাসপোর্ট) এর আবেদন গ্রহণ ও বিতরণ কার্যক্রম সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে পরিচালিত হচ্ছে। জুলাই ২০১৮ মাসে পাসপোর্টের আবেদনপত্র জমা হয়েছে ২,৬০০টি। এর মধ্যে ২,১২০টি সাধারণ, অফিসিয়াল ৫টি ও ৪৬৫টি জরুরি আবেদন জমা হয়েছে। বিবেচ্য মাসে সাধারণ ও জরুরি পাসপোর্ট বিতরণ করা হয়েছে ৩,৭০৯টি এবং ১০টি অফিসিয়াল পাসপোর্ট বিতরণ হয়েছে। কিছু পাসপোর্ট বিতরণের অপেক্ষায় আছে। এ মাসে রাজস্ব আদায় হয়েছে ৮৯,৭৩,০০০/-টাকা। সহকারী পরিচালক, পাসপোর্ট অফিস, ঝিনাইদহ হয়রানী রোধে অনলাইনে পাসপোর্টের আবেদন করতে অনুরোধ জানান।

 

পাসপোর্টের আবেদন গ্রহণ ও বিতরণে জনগণ যাতে হয়রানির শিকার না হয় সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রেখে কাঙ্ক্ষিত মানের সেবা প্রদান অব্যাহত রাখতে হবে।

 

সহকারী পরিচালক, আঞ্চলিক পাসপোর্ট অধিদপ্তর।

৫১

মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম:

সহকারী পরিচালকের প্রতিনিধি জানান, ‘‘মন্দিরভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম ৪র্থ পর্যায়’’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় এ জেলার ৬ টি উপজেলায় ৮০ টি শিক্ষাকেন্দ্র চলমান আছে। কেন্দ্র চলাকালীন সময়ে নিয়মিত পরিদর্শন কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে থাকে। তাছাড়া, এ কার্যালয়ে কোন সমস্যা নাই।

 

বিভাগীয় দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন অব্যাহত রাখতে হবে।

 

সহকারী পরিচালক,

ম. শি. ও গ. শি. কার্যক্রম।

৫২

জেলা সরকারি গণগ্রন্থাগার:

লাইব্রেরিয়ান (চঃদাঃ) জানান, এ গ্রন্থাগারে বাংলা ২৪,৬২০টি, ইংরেজি ১৯৭৬টি, অন্যান্য ৫৪টি, পুস্তকসহ মোট ২৬,৬৫০টি পুস্তক মজুদ আছে। এছাড়া পত্র-পত্রিকার মধ্যে বাংলা ১০টি, ইংরেজি ০১টি দৈনিক পত্রিকা এবং ০৮টি সাময়িকী নিয়মিত ক্রয় করা হয়। অন্যান্য দপ্তর থেকে প্রাপ্ত বাংলা সাময়িকী ০৩টি। জনসাধারণ সরকারি এ গ্রন্থাগারে উপস্থিত হয়ে জ্ঞান অর্জন করতে পারেন ।

 

দাপ্তরিক কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করতে হবে।

 

সহকারী লাইব্রেরিয়ান, জেলা সরকারি গণপ্রন্থাগার।

 

 ৫৩

জেলা কালচারাল অফিসার:

জেলা কালচারাল অফিসার জানান, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১১৯তম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ৩০ জুন ২০১৮ তারিখ প্রবন্ধ উপস্থাপন, আলোচনা ও গীতিনৃত্যনাট্য পরিবেশিত হয়। এছাড়া, ২০-২১ জুলাই ২০১৮ খ্রিঃ তারিখ ডিসি কোর্ট মুক্তমঞ্চে জেলা পর্যায়ের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সকলের সহযোগিতায় সুন্দরভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

 

গ্রাম বাংলার  নিজস্ব লোকজ সংস্কৃতি সংরক্ষণের উদ্যোগ অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

জেলা কালচারাল অফিসার।

৫৪

জাতীয় প্রতিবন্ধী উন্নয়ন ফাউন্ডেশন:

প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা জানান, বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এবং অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতিতে সুসজ্জিত এই কেন্দ্র হতে স্ট্রোক প্যারালাইসিস, ফ্রোজেন সোল্ডার, জিবিএস, এনকাইলোজিং স্পন্ডলাইটিস, বাত-ব্যাথা (কোমর/মাজা-ঘাড়-মেরুদন্ডে বা হাঁটুতে), স্পন্ডুলাইটিস, আর্থ্রাইটিস (অস্টিও/রিউমাটয়েড) স্পোর্টস ও আঘাতজনিত সমস্যা সেরিব্রাল পালসি ও প্রতিবন্ধীতাসহ সকল ধরণের প্রতিবন্ধীদের সম্পূর্ণ বিনামূল্যে থেরাপি চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয় এবং অন্যান্য রোগের পরামর্শ ও রেফারেল সেবা প্রদান করা হয়।

 

 

প্রতিবন্ধীদের সমাজের মূল স্রোতধারায় ফিরিয়ে আনার সকল প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে।

 

প্রতিবন্ধী বিষয়ক কর্মকর্তা।

(১১)

 

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

৫৫

ঔষধ  তত্ত্বাবধায়কের কার্যালয়:

ঔষধ তত্ত্বাবধায়ক সভায় অনুপস্থিত থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না।

 

সভায় উপস্থিত থাকতে হবে।

 

ঔষধ তত্ত্বাবধায়ক।

৫৬

কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট বিভাগ:

বিভাগীয় কর্মকর্তার প্রতিনিধি জানান, যারা ৯ডিজিটের ভ্যাট নিবন্ধনপত্র গ্রহণ করেছেন তাদের নিবন্ধন ৩১ মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত বহাল ছিল এবং ১ এপ্রিল ২০১৮ হতে সকল প্রতিষ্ঠানের ০৯ ডিজিটের ভ্যাট নিবন্ধনপত্র গ্রহণে বাধ্যবাধকতা রয়েছে। শৈলকুপা ও কোটচাঁদপুরে প্রচুর ইজারা ও ভ্যাটের টাকা বকেয়া রয়েছে মর্মে জানান।

 

সকল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানকে ভ্যাট নিবন্ধন/ পুনঃনিবন্ধন গ্রহণ করতে হবে। বকেয়া ইজারা ও ভ্যাটের টাকা আদায় করতে হবে।

 

বিভাগীয় কর্মকর্তা, কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট।

৫৭

জীবন বীমা কর্পোরেশন:

জীবন বীমা কর্পোরেশনের সহকারী ম্যানেজার সভায় অনুপস্থিত থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না।   

 

কার্যপত্র প্রেরণ করতে ও   সভায় উপস্থিত থাকতে হবে।

 

সহকারী ম্যানে: সেলস ইন চার্জ।

৫৮

তুলা উন্নয়ন বোর্ড:  

প্রধান তুলা উন্নয়ন কর্মকর্তা জানান, তুলা বীজ বিতরণ করা হয়েছে ১৭,৬৬৬কেজি (উফশী) ও ১,০০০ কেজি (হাইব্রিড)। তুলার সাধারণ প্রদর্শনী হয়েছে ৪০টি। দলীয় আলোচনা সভা, জমি জরিপ, তুলা বপন ও তুলা ফসলের পরিচর্যার বিষয়ে পরামর্শ কার্যক্রম চলমান আছে।

 

ভেজালমুক্ত বীজ বিতরণ, প্রদর্শনী কার্যক্রম বৃদ্ধি এবং বীজ বপন কাজ সঠিক সময়ে সম্পন্ন করতে হবে।

 

প্রধান তুলা উন্নয়ন কর্মকর্তা।

৫৯

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর:

সভায় সহকারী পরিচালক জানান, জুলাই ২০১৮ মাসে ৯টি বাজারে তদারকিমূলক অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে এবং ৫৯টি প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন করা হয়েছে। পরিদর্শনকালে ২৩টি প্রতিষ্ঠানে ১,১৯,৫০০/- টাকা জরিমানা আরোপ করা হয় এবং সম্পূর্ণ অর্থ আদায় করা হয়েছে । এছাড়া, বিভিন্ন বাজারে ভোক্তা অধিকার আইন, ২০০৯ সংক্রান্ত লিফলেট ও প্যাম্পলেট বিতরণ করা হয়েছে।

 

পরিদর্শন কার্যক্রম বৃদ্ধিসহ জনসাধারণ যাতে হয়রানির শিকার না হয় সে দিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।

সহকারী পরিচালক,  জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

৬০

রেশম উন্নয়ন বোর্ড: 

উপপরিচালক, আঞ্চলিক রেশম উন্নয়ন বোর্ড জানান, জুলাই ২০১৮ মাসে ৩৫ বিঘা জমিতে নাসারি রয়েছে এবং সম্প্রসারিত ২১টি ব্লকে মোট ২০,৭৯০টি তুত গাছের রক্ষণাবেক্ষণ কার্যক্রম চলমান আছে। এছাড়া, সুতা উৎপাদন হয়েছে ৫৫.০ কেজি। দাপ্তরিক অন্যান্য কার্যক্রম ভালোভাবে চলছে।

 

তুত গাছ পরিচর্যা, ডিম পালন ও গুটি উৎপাদন বৃদ্ধি করতে হবে।

 

উপপরিচালক, আঞ্চলিক রেশম উন্নয়ন সম্প্রসারণ।

৬১

কৃষি প্রশিক্ষণ ইনিস্টিটিউট:

অধ্যক্ষ (ভা:), কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট সভায় উপস্থিত না থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না।

 

কার্যপত্র প্রেরণসহ সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকতে হবে।

 

অধ্যক্ষ, কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট।

৬২

আইএইচটি:

অধ্যক্ষ, আইএইচটি সভায় উপস্থিত না থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না।

 

সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকতে হবে এবং কার্যপত্র প্রেরণ করতে হবে।

 

অধ্যক্ষ, আইএইচটি।

৬৩

সরকারি ভেটেরিনারি কলেজ:

অধ্যক্ষ, সরকারি ভেটেরিনারি কলেজ সভায় উপস্থিত না থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না।

 

কার্যপত্র প্রেরণ করতে হবে। সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকতে হবে।

 

অধ্যক্ষ, সরকারি ভেটেরিনারী কলেজ ।

৬৪

 

 

 

 

 

বাংলাদেশ ফলিত পুষ্টি গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (বারটান):

অধ্যক্ষ, বাংলাদেশ ফলিত পুষ্টি গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (বারটান) সভায় উপস্থিত না থাকায় সংশ্লিষ্ট দপ্তর সম্পর্কে আলোচনা করা সম্ভব হলো না।

 

কার্যপত্র প্রেরণসহ সভায় নিয়মিত উপস্থিত থাকতে হবে।

 

অধ্যক্ষ, বাংলাদেশ ফলিত পুষ্টি গবেষণা ও প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (বারটান)।

 

 

 

 

 

 

(১২)

 

ক্রমিক

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

 

৬৫

 

 

 

 

বিবিধ :

ক) ওয়েবপোর্টাল হালনাগাদকরণ:

জেলা ওয়েব পোর্টাল জেলার দর্পণস্বরূপ। ওয়েব পোর্টাল হালনাগাদকরণ অত্যন্ত জরুরি। জেলা/উপজেলায় ওয়েবপোর্টাল আইডি ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে স্ব-স্ব অফিসের ওয়েব পোর্টাল শতভাগ হালনাগাদ করে আগামী সভায় উপস্থাপনের জন্য সভার মাধ্যমে অনুরোধ জানানো হয়।

 

 

ওয়েব পোর্টাল সবসময় হালনাগাদ রাখতে হবে এবং আগামী সভায় তথ্য প্রদান করতে হবে।

 

 

স্ব স্ব অফিস প্রধান।

 

খ) জাতীয় শুদ্ধাচার কৌশল সম্পর্কিত আলোচনা:

সভাপতি উল্লেখ করেন, একটি রাষ্ট্রের উন্নয়ন ও অবনমন বহুলাংশে নির্ভর করে সে রাষ্ট্রের নীতি-নৈতিকতা ও শুদ্ধাচার কৌশল অনুশীলনের উপর। এ লক্ষ্যে জীবনের প্রথম পর্যায় থেকেই শুদ্ধাচার রপ্ত করতে স্কুল, কলেজে শুদ্ধাচার অনুশীলনে গুরুত্ব প্রদান করা হয়। সভাপতি আরও বলেন, পরস্পর শ্রদ্ধা, সততা, সময়নিষ্ঠা ও দায়িত্ববোধের উন্নত মানসিকতাই পারে একটি ক্ষুধা, দারিদ্র্য, বেকারত্ব ও বঞ্চনামুক্ত সুখী, সমৃদ্ধ রাষ্ট্র উপহার দিতে। এর মাধ্যমে সম্ভব ‘রূপকল্প ২০২১’ এর সফল বাস্তবায়ন। তাই জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে শুদ্ধাচার অনুশীলনের আহবান জানানো হয়। সেসাথে সকলের সম্পদের বিবরণীর হালনাগাদ রাখার জন্য সভায় আলোচনা হয়।

 

শুদ্ধাচার কৌশল অনুসরণ করে ব্যক্তিগত, সামাজিক ও দাপ্তরিক পর্যায়ে সকল কার্যক্রম সততা ও দক্ষতার সাথে পরিচালনা করতে হবে এবং সম্পদের  হালনাগাদ হিসাব  প্রদান করতে হবে।

 

সংশ্লিষ্ট সকল দপ্তর/

বিভাগীয় প্রধান।

 

 

 

 

গ) জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন সম্পর্কিত আলোচনা:

সভায় আলোচনা হয়, এ জেলায় অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন কার্যক্রম শুরু হয়েছে এবং ইতোমধ্যে অনেক ইউনিয়ন পরিষদ উক্ত কার্যক্রম শতভাগ সম্পন্ন করেছে। যে সকল ইউনিয়ন এখনো শতভাগ সম্পন্ন করতে পারেনি সে সকল ইউনিয়ন প্রয়োজনে নিজস্ব অর্থায়নে অবিলম্বে অনলাইনে ডাটা এন্ট্রি করার কাজ সম্পন্ন করতে হবে। এ জেলার সকল পৌরসভা এবং সকল ইউনিয়ন পরিষদে জন্ম ও মৃত্যু নিবন্ধন আইন, ২০০৪ অনুযায়ী ৪৫ দিনের মধ্যে জন্ম নিবন্ধন এবং ৩০ দিনের মধ্যে মৃত্যু নিবন্ধন নিশ্চিত করার জন্য উপপরিচালক, স্থানীয় সরকার এবং সকল মেয়র ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারগণের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়।

 

অনলাইনে জন্ম নিবন্ধন দ্রুত সম্পন্ন করতে হবে এবং বাল্য বিবাহ বন্ধে প্রচারণা অব্যাহত রাখতে হবে।

 

উপপরিচালক স্থানীয় সরকার /উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)।

 

 

ঘ) জঙ্গি তৎপরতা রোধে উদ্বুদ্ধকরণ কার্যক্রম:

বর্তমান সময়ে জঙ্গি তৎপরতা রোধকল্পে জনগণকে এ ব্যাপারে সচেতন থাকতে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালানো হচ্ছে। সুস্থ ও স্বাভাবিক পরিবেশ বজায় রাখতে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে আরও সজাগ ও সতর্ক দৃষ্টি রাখার জন্য অনুরোধ জানানো হয়।

 

অপরিচিত/নবাগতদের প্রতি সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। প্রয়োজনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে অবহিত করতে হবে এবং এ জেলাকে জঙ্গিমুক্ত রাখতে হবে।

 

পুলিশ সুপার/

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)/মেয়র  পৌরসভা (সকল)।

 

ঙ) পরিবেশ সংরক্ষণ সংক্রান্ত:

সভাপতি উল্লেখ করেন, প্রচলিত পদ্ধতির ইট ভাটার কালো ধোঁয়া উদগিরণ পরিবেশ বিপর্যয়ের অন্যতম কারণ হিসেবে চিহ্নিত হয়ে আসছে। তাই ইট ভাটার মাধ্যমে পরিবেশ বিপর্যয় ঠেকাতে পরিবেশ বান্ধব আধুনিক পদ্ধতিতে ইট প্রস্তুতের লক্ষ্যে ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০১৩ জারি করা হয়েছে। উক্ত আইনে আবাসিক, সংরক্ষিত বা বাণিজ্যিক এলাকা, পৌরসভা বা উপজেলা সদর, সরকারি বা ব্যক্তি মালিকানাধীন বন, অভয়ারণ্য, বাগান বা জলাভূমি, একাধিক ফসল উৎপন্ন হয় এরূপ জমি, পরিবেশগত সংকটাপন্ন এলাকা ইত্যাদি স্থানে কোন ধরনের ইট ভাটা স্থাপনের কোন উদ্যোগ গ্রহণ করা যাবে না। সে সাথে বৃক্ষরোপণ ও পরিচর্যা অব্যাহত রেখে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করতে হবে।

 

ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০১৩ যথাযথভাবে অনুসরণ করতে হবে এবং নিয়মিত মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করতে হবে। বৃক্ষ রোপণ ও পরিচর্যা অব্যাহত রাখতে হবে।

 

 

 

পুলিশ সুপার/ বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট/

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)/মেয়র (সকল) পৌরসভা/ সহকারী বন সংরক্ষক।

 

চ) যৌতুক বিরোধী সামাজিক আন্দোলন ও বাল্যবিবাহ সংক্রান্ত আলোচনা:

যৌতুক একটি অনগ্রসর সমাজের পরিচায়ক। কেননা, যৌতুকের মূলে রয়েছে অশিক্ষা, অসচেতনতা, দরিদ্রতা, লোভ প্রভৃতি নেতিবাচক ঘটনা। তাই যৌতুক নির্মূলে সকলের সক্রিয় ভূমিকা নিশ্চিত করতে সভায় অনুরোধ জানানো হয়। সভায় আরও উল্লেখ করা হয়, বর্তমানে জেলায় যৌতুকের প্রভাব হ্রাস পেয়েছে। যৌতুক প্রথাকে বিলুপ্ত করতে আইনের যথাযথ প্রয়োগের পাশাপাশি সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ করা হয়। এ ক্ষেত্রে স্কুল-কলেজে পাঠ্যসূচির সাথে মসজিদ ও উপাসনালয়ে প্রচারণার পাশাপাশি যৌতুক আদান-প্রদানকারীদের সামাজিকভাবে বয়কট করতে সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।

 

যৌতুক বিরোধী

সামাজিক আন্দোলন ও বাল্যবিবাহ নিয়ন্ত্রণ এবং নারী নির্যাতন বন্ধে সচেতনতামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে।

 

সংশ্লিষ্ট সকল সদস্য/জেলা মহিলা বিষয়ক

কর্মকর্তা।

 

 

 

 

 

             

 

 

(১৩)

 

 

 

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

ছ) ভিশন ২০২১ : ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন সংক্রান্ত আলোচনা:

সভাপতি জানান, ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার মাধ্যমে এ দেশকে মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার লক্ষ্যমাত্রা হচ্ছে “ভিশন ২০২১”। বর্তমান সরকার এ লক্ষ্যে জেলায় ইউ.ডি.সি (ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টার), ফ্রি ওয়াইফাই জোন সুবিধা প্রদান করেছে। শিক্ষার্থীদের মাঝে ল্যাপটপ বিতরণ করা হয়েছে। জনসংখ্যাকে জনশক্তিতে রপান্তরিত করতে কারিগরি শিক্ষার প্রসার ও জনশক্তি রপ্তানি বৃদ্ধি পেয়েছে। সরকার “ভিশন ২০২১” বাস্তবায়নে বহুমুখী কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। এ সকল কার্যক্রমের সফল বাস্তবায়নে সকল বিভাগকে যথাযথ ভূমিকা পালনে সভাপতি অনুরোধ জানান।

 

ইউনিয়নসমূহ পরিদর্শনকালে ইউনিয়ন ডিজিটাল কেন্দ্রসমূহের প্রতি বিশেষ দৃষ্টি রাখতে হবে।

 

উপপরিচালক স্থানীয় সরকার/

উপজেলা নির্বাহী  অফিসার (সকল), ঝিনাইদহ।

জ) ইনোভেশন:

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়া এবং ২০২১ সালের মধ্যে মধ্যম আয়ের দেশে উপনীত হতে সময়োপযোগী উদ্ভাবনের বিকল্প নেই মর্মে সভাপতি উল্লেখ করেন। তিনি আরও বলেন, দেশের নিজস্ব সম্পদ, কাঁচামালের উপযুক্ত ব্যবহার নিশ্চিত করতে পারলেই অভিষ্ঠ লক্ষ্য অর্জন সম্ভব। তাই উদ্ভাবনের ক্ষেত্রে নিজস্ব সুযোগ, সুবিধার দিকে গুরত্ব দিতে হবে। তাছাড়া, উদ্ভাবন হতে হবে দেশের মানুষের মূল্যবোধ ও সংস্কৃতির সাথে মানানসই এবং সময়োপযোগী। অন্যথায় জনগণ তা গ্রহণ করবে না। এ ব্যাপারে সকলকে সচেতন ভূমিকা পালনের অনুরোধ জানানো হয়। জনগণের দোরগোড়ায় সহজলভ্য সেবা প্রদানের লক্ষ্যে প্রত্যেক অফিস ইনোভেটিভ আইডিয়া গ্রহণ করে তা বাস্তবায়ন করবেন।

 

জেলা ইনোভেশন টিমের বার্ষিক কর্মপরিকল্পনা অনুযায়ী ইনোভেশন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করতে হবে মর্মে সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

 

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (আইসিটি)/ বিভাগীয় প্রধান

(সকল)

ঝিনাইদহ।

 

) বেসরকারি উদ্যোগে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম স্থাপন এবং মিড ডে মিল চালুকরণ:

 

সভাপতি, উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রতিটি ক্লাসরুমে স্থানীয় বিত্তবান ও প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ত করে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসরুম স্থাপন এবং সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালুকরণসহ উপজেলাওয়ারী মাসে কতটি মিড ডে মিল চালু হবে সে টার্গেট আগামী সভায় উপস্থাপন করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে অনুরোধ করেন।

 

 

সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মিড ডে মিল চালু রাখতে হবে।

 

 

উপজেলা  নির্বাহী অফিসার (সকল)/ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার।

) নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিতকরণ:

সভাপতি নিরাপদ খাদ্য আইন, ২০১৩-এর মাধ্যমে উৎপাদন, আমদানি ও বিপণনের সকল স্তরে খাদ্য নিরাপদ রাখা নিশ্চিতকরণ; খাদ্যের মান নির্ধারণে শাকসবজি বিষমুক্ত/ফরমালিনমুক্ত রাখার বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রককে অনুরোধ করেন। এছাড়া, বিভিন্ন এনজিওকে বিষমুক্ত/ফরমালিনমুক্ত শাকসবজি বিক্রয়কেন্দ্র স্থাপনের জন্য অনুরোধ করা হয় ।

 

জনসাধারণের মাঝে ভেজাল ও ফরমালিনমুক্ত খাদ্য ও ফলমূল পৌঁছে দেয়া নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে মোবাইল কোর্ট ও নিয়মিত বাজার মনিটরিং অভিযান বৃদ্ধি করতে হবে।

 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (সকল)/জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক/ সহকারী পরিচালক,

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

ট) কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ কার্যক্রম:

সভাপতি উল্লেখ করেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিদেশে বাংলাদেশী কর্মীদের জন্য আরও অধিকহারে কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রশিক্ষণ ও দক্ষ শ্রমশক্তি সৃষ্টির জন্য যে সকল প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন ট্রেডে প্রশিক্ষণ প্রদান করে থাকে তাদের সঙ্গে সমন্বয়পূর্বক অধিক হারে দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির নির্দেশনা প্রদান করেছেন। সে লক্ষ্যে কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, সমাজসেবা কার্যালয়, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়, বিআরডিবি, আনসার ও ভিডিপিসহ অন্যান্য প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে দক্ষ জনশক্তি সৃষ্টির লক্ষ্যে বিভাগীয় কর্মকর্তাগণ পরিদর্শনের সময় বিষয়টি মনিটরিং করবেন। সে সাথে শূন্য পদ পূরণের জন্য স্ব-স্ব মন্ত্রণালয়ে পত্র  প্রদান করে জেলা প্রশাসককে অবহিত করতে হবে।

 

অধিকহারে কর্মসংস্থানের সুযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে প্রশিক্ষক ও দক্ষ শ্রমশক্তি সৃষ্টির জন্য পরিদর্শনকালে সকল প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানে কাজের অগ্রগতি পর্যালোচনা করতে হবে। প্রশিক্ষণ শেষে মূল্যায়নকালে জেলা প্রশাসনকে অবহিত করতে হবে।

 

অধ্যক্ষ, কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র/ উপপরিচালক, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর/

সমাজসেবা অধিদপ্তর/  

বিআরডিবি/

জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা/ কমান্ড্যান্ট

 আনসার ও  ভিডিপি এবং স্ব-স্ব বিভাগ।

 

 

 

(১৪)

 

 

আলোচনা

সিদ্ধান্ত

বাস্তবায়নে

ঠ) ঝিনাইদহ জেলার ডিরেক্টরি:

ঝিনাইদহ জেলার ডিরেক্টরি তৈরির বিষয়ে সভায় বিস্তারিত আলোচনা করা হয়।

 

প্রত্যেক অফিস পূর্বতন ও বর্তমান অফিসারের নাম ও কার্যকালসহ বিস্তারিত তথ্য প্রদান করবেন।

 

সকল অফিস প্রধান।

     

              

             সভায় আর কোন আলোচ্য বিষয় না থাকায় উপস্থিত সকল সদস্যকে ধন্যবাদ জানিয়ে এবং গৃহীত সিদ্ধান্তসমূহ বাস্তাবায়নের অনুরোধ করে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয় । 

 

 

                                                             সরোজ কুমার নাথ

                                                                                                                জেলা প্রশাসক

      ঝিনাইদহ।

( ০৪৫১-৬২৩০১

E-mail: dcjhenaidah@mopa.gov.bd

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ছবি


সংযুক্তি

আগস্ট মাস/২০১৮ আগস্ট মাস/২০১৮


সংযুক্তি (একাধিক)

জুলাই মাস জুলাই মাস



Share with :

Facebook Twitter